গোপন খবর ফাঁসঃ আইসিসি নয়, বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ঠিক করে দেয় ভারত!

বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০১৯ ৬:০৫ অপরাহ্ণ

বিশ্ব ক্রিকেটে ভারতের প্রভাব সবারই জানা আছে। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসিকে বলতে গেলে ভারত নিয়ন্ত্রণ করে। কিন্তু এবার ভারতের ক্ষমতা নিয়ে বোমা ফাটানো তথ্য দিয়েছে ভারতেরই এক সংবাদ মাধ্যম।

বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ভারত ঠিক করে দেয় বলেই দাবি জানিয়েছে তারা। চলতি বিশ্বকাপ চলছে ইংল্যান্ডে। এদিকে ইংল্যান্ডের আবহাওয়া, বৃষ্টির কারণে ম্যাচে পরিত্যক্ত এমন ঘটনার জন্য আইসিসিকে কম সমালোচিত হতে হচ্ছে না। এরই মধ্যে চারটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে।

এদিকে বিশ্বকাপের স্বাগতিক ও সময় ভারত নির্ধারণ করে দেয় বলেই দাবি জানিয়েছে ভারতেরই একটি সংবাদ মাধ্যম। ১৯৮৭ সালে বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল ভারত-পাকিস্তান। এরপর ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়া -নিউজিল্যান্ডে বিশ্বকাপ হওয়ার পর ভারতের সঙ্গে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপের আয়োজক হয়।

এদিকে ২০১১ বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড আয়োজিত করতে চাইলেও এশিয়ার দেশগুলোর জন্য তা পারেনি। ভারতের সংবাদ মাধ্যমের দাবি ভারতের প্রভাবের কারণে ভোটে এশিয়ার দেশ জয় পায় এবং বিশ্বকাপ এখানেই অনুষ্ঠিত হয়। ২০২৩ বিশ্বকাপ আয়োজন করবে ভারত। সেটাও আবার যৌথভাবে নয়। আর এতে ভারতের প্রভাব রয়েছে বলেই দাবি ঐ সংবাদ মাধ্যমটির।

আরো পড়ুনঃ দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে চান? নিয়মিত এই ৮টি খাবার খান!

প্রাকৃতিক নিয়মেই যদিও আমাদের বয়স বাড়ে, কিন্তু সত্যটা এই যে কেউই আসলে তা মন থেকে মেনে নিতে পারেন না। আর তাই নিজেকে চির তরুণ রাখতে আমাদের চেষ্টার অন্ত নেই।

তারুণ্য ধরে রাখতে অনেকেই কসমেটিক সার্জারি, ওষুধ, বিভিন্ন ক্ষতিকর উপাদান গ্রহন করে থাকেন যা খুবই ক্ষতিকর শরীরের জন্য। অথচ নিজের যৌবন দীর্ঘদিন ধরে রাখার জন্য এতো ঝামেলা করার কোনো প্রয়োজন নেই। প্রয়োজন কেবল খাদ্য তালিকায় সঠিক খাবার রাখবার!

যৌবন এমন এক জিনিস যা সবাই ধরে রাখতে চান। প্রাকৃতিক নিয়মেই যদিও আমাদের বয়স বাড়ে, কিন্তু সত্যটা এই যে কেউই আসলে তা মন থেকে মেনে নিতে পারেন না। আর তাই নিজেকে চির তরুণ রাখতে আমাদের চেষ্টার অন্ত নেই।

তারুণ্য ধরে রাখতে অনেকেই কসমেটিক সার্জারি, ওষুধ, বিভিন্ন ক্ষতিকর উপাদান গ্রহন করে থাকেন যা খুবই ক্ষতিকর শরীরের জন্য। অথচ নিজের যৌবন দীর্ঘদিন ধরে রাখার জন্য এতো ঝামেলা করার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ খুব সহজেই কিছু বিশেষ খাবার খাওয়ার মাধ্যমে নিজের যৌবন ধরে রাখতে পারবেন আপনি। আসুন জেনে নেয়া যাক এমন ৮টি খাবার সম্পর্কে যারা আপনাকে রাখে চির তরুণ।

ডার্ক চকলেটঃ অনেকেই চকলেট ভালোবাসেন। যারা চকলেট ভালোবাসেন তাদের জন্য ভালো খবর হলো ডার্ক চকলেট বয়স ধরে রাখতে সহায়তা করে। ডার্ক চকলেটে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। তাই যারা নিয়মিত প্রতিদিন ছোট এক টুকরা ডার্ক চকলেট খান তারা দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে পারেন।

সামুদ্রিক মাছঃ সামদ্রিক মাছ যৌবন ধরে রাখতে সহায়ক। দীর্ঘ দিন যৌবন ধরে রাখতে চাইলে নিয়মিত খাবার তালিকায় লাল মাংস বাদ দিয়ে সামুদ্রিক মাছ রাখুন। তাতে শরীরে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের চাহিদা পূরণ হয়ে যাবে এবং যৌবন ধরে রাখা যাবে বহুদিন।

অলিভ অয়েলঃ অলিভ অয়েল একটি উপকারী তেল। খাবার রান্নার সময় অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে শরীরে ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের পরিমান কম থাকে এবং সহজে মেদ জমে না। এছাড়াও প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়ার আগে ত্বকে অলিভ অয়েল ম্যাসাজ করে ঘুমালে ত্বকে বলিরেখা পরে না সহজে। ফলে দীর্ঘ দিন যৌবন ধরে রাখা যায়।

গাজর ও টমেটোঃ গাজর ও টমেটো ত্বক ও স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। বিশেষ করে যৌবন ধরে রাখার ক্ষেত্রে এই দুটি সবজির জুড়ি নেই। এগুলোতে প্রচুর পরিমানে ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে। এছাড়াও এতে আছে বিটা ক্যারোটিন ও লুটেইন যা শরীরের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করতে সহায়তা করে।

আঙ্গুরঃ বয়স ধরে রাখতে আঙ্গুরের জুড়ি নেই। আঙ্গুরে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে। ফলে নিয়মিত আঙ্গুর খেলে ত্বক ও দেহ সুন্দর ও সুস্থ থাকে।

ব্রকলিঃ ব্রকলিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে যা বয়সজনিত বিভিন্ন অসুখ থেকে দেহকে রক্ষা করে এবং শরীরের বুড়িয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে ধীর করে ফেলে।

টক দইঃ টক দই মেদ ও কোলেস্টেরল কমাতে সহায়তা করে। দইয়ে প্রচুর প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম আছে যা শরীরের গঠন ভালো রাখে এবং হাড়ের ক্ষয় রোধ করে।

এছাড়াও দই ত্বককে রাখে বলিরেখা মুক্ত। তাই যৌবন ধরে রাখতে চাইলে প্রতিদিন দই খান।

পালং শাকঃ পালং শাকে প্রচুর পরিমানে লুটেইন আছে যা শরীরের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করে এবং যৌবন ধরে রাখতে সহায়তা করে। নিয়মিত পালং শাক খেলে ত্বক চোখের বয়সজনিত সমস্যা কমে যায়। এছাড়াও এতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন আছে বলে পালং শাক শরীরের নানা অসুবিধা দূর করে এবং শরীরে পুষ্টি ও শক্তির যোগান দেয়।